আয়কর বিবরণী প্রকাশ: আপিলেও হারলেন ট্রাম্প

অনলাইন ডেস্ক :
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ও তার পারিবারিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের আয়কর বিবরণী চেয়ে ম্যানহাটনের এক অ্যাটর্নির কার্যালয়ের জারি করা পরোয়ানা মামলার আপিলেও নিম্ন আদালতের রায় বহাল থাকছে।
সোমবার সেকেন্ড ইউএস সার্কিট কোর্ট অব আপিলসের বিচারকরা ট্রাম্পের হিসাব ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানকে প্রেসিডেন্টের ৮ বছরের ব্যক্তিগত ও কর্পোরেট আয়কর বিবরণী ম্যানহাটনের কৌঁসুলিদের কাছে হস্তান্তর করতে বলেছেন বলে জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।
অবশ্য আপিলে হারলেও এখনই ট্রাম্পকে তার আয়কর সংক্রান্ত নথি জমা দিতে হচ্ছে না। তিনি চাইলে এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টেরও দ্বারস্থ হতে পারবেন। যুক্তরাষ্ট্রের এ সর্বোচ্চ আদালতেই বিষয়টির মীমাংসা হতে যাচ্ছে বলে পর্যবেক্ষকরা ধারণা করছেন।
মার্কিন গণমাধ্যমগুলো জানায়, চলতি বছরের অগাস্টে ম্যানহাটনের ডেমোক্র্যাট অ্যাটর্নি সাইরাস আর ভেন্স জুনিয়রের কার্যালয় ট্রাম্পের হিসাব ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান মাজার্সের কাছে ২০১১ সালের পর থেকে ট্রাম্প ও তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহের আয়কর বিবরণী চেয়ে পরোয়ানা জারি করলে দুই পক্ষের মধ্যে আইনী লড়াইয়ের শুরু হয়।
সাইরাসের এ কার্যালয় ২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল দাবি করা দুই নারীকে অর্থ দেয়ার অভিযোগ খতিয়ে দেখছে।
অভিশংসন ছাড়া মার্কিন সংবিধান প্রেসিডেন্টকে যাবতীয় অপরাধের তদন্ত থেকে দায়মুক্তি দিয়েছে যুক্তি দিয়ে ট্রাম্পের আইনজীবীরা শুরু থেকেই এ আয়কর বিবরণী প্রকাশের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেন।
ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নির কার্যালয় রাজনৈতিক উদ্দেশ্য থেকে, প্রেসিডেন্টকে হয়রানি করতেই এমনটা করছে বলেও অভিযোগ তাদের।
অক্টোবরে ম্যানহাটনের আদালত সাইরাসের কার্যালয়ের পরোয়ানার পক্ষে অবস্থান নিলে ট্রাম্প আপিল করেন।
সোমবার আপিল আদালতও ট্রাম্পের দায়মুক্তির যুক্তি প্রত্যাখ্যান করে জানায়, সাইরাসের কার্যালয় ট্রাম্প নয়, তার প্রতিষ্ঠানের কাছে নথি চেয়েছে; যা মোটেও প্রেসিডেন্টের দায়মুক্তির সঙ্গে সম্পর্কিত নয়।
তিন সদস্যের এ আপিল আদালতে বিচারক হিসেবে ছিলেন রবার্ট এ কাটজম্যান, ডেনি চিন ও ক্রিস্টোফার এফ ড্রোনি। প্রথমজন বিল ক্লিনটনের আমলে নিয়োগ পেয়েছিলেন, পরের দুজনকে আপিল বিভাগে এনেছিলেন বারাক ওবামা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *