আলী হায়দার মানিক : এবার সারাদেশে এইচএসসি পরীক্ষায় ফলাফলে ফেনীতে পাশের হার ও জিপিএ-৫ এর সংখ্যা বেড়েছে। অবশ্য সারাদেশে পাশের হারের তুলনায় পিছিয়ে পড়েছে ফেনী। সারাদেশে এবার পাশ করেছে ৭৩.৯৩শতাংশ। অন্যদিকে ফেনীতে পাশের হার ৬৩.৫১শতাংশ।

জেলার ৪০টি কলেজ থেকে এ বছর ৯ হাজার ৮শ ৭০ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৬ হাজার ২৬৮জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১শ ৩৩জন। উপজেলা পর্যায়ে সোনাগাজী ও ফুলগাজী উপজেলায় কেউ জিপিএ ৫ পায়নি।

২০১৮ সালে জেলায় পাশের হার ছিল ৫০.৮২শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৮৬ জন। এর আগে ২০১৭ সালে পাশের হার ছিল ৪৪.৫০শতাংশ ও জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৮৬জন। ২০১৬ সালে পাশের হার ছিল ৬২.৫২শতাংশ ও জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১৪০ জন। বিগত তিন বছরের তুলনায় এবার পাশের হার ও জিপিএ-৫ দুটোই বেড়েছে।

ফেনী গালর্স ক্যাডেট কলেজ বরাবরের মত এবারও ভাল ফলাফল করেছে। এ কলেজ থেকে ৬০ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই জিপিএ-৫ পেয়েছে।

ফেনী সরকারী কলেজ থেকে ১হাজার ৫শ ৩৬ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ১ হাজার ১শ ৮৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৪ জন এবং পাশের হার ৭৭.২১শতাংশ। গত বছর এ কলেজে ১ হাজার ৬শ ৪৯ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ১ হাজার ১শ ৩৭ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪ জন এবং পাশের হার ছিল ৬৮.৫৪ শতাংশ।

সরকারি জিয়া মহিলা কলেজে ৯৭৩জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৬৪৬জন, পাশের হার ৬৬.৩৯ শতাংশ। মহিপাল সরকারি কলেজে ৭৮৬জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৫১৩জন, পাশের হার ৬৫.২৭ শতাংশ। জয়নাল হাজারী কলেজে ৪৪৩জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৩৮১জন। এখানে পাশের হার ৮৬.৩৯শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১জন। ২০১৮ সালে ৩শ ৮৩ জনের মধ্যে পাশ করেছিল ৩শ ৩৭ জন। পাশের হার ছিল ৮৮.৪৫ শতাংশ।

এছাড়া রামপুর নাসির মোমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজে ১১৮জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৪৫জন। এখানে পাশের হার ৩৮ শতাংশ। ফেনী মডেল কলেজে ৭১.১৫ শতাংশ, শাহীন একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজে ৬৮.৮৫ শতাংশ, ফেনী ন্যাশনাল কলেজে পাশের হার ৪৫.৪৫ শতাংশ, ফেনী সিটি কলেজে পাশের হার ৪৬.৯৪ শতাংশ। ফেনী ভিক্টোরীয়া কলেজে ১জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। এখানে পাশের হার ৫৪.১৩ শতাংশ। বীকন কলেজে পাশের হার ৫২.১১ শতাংশ। ফেনী মহিলা কলেজে পাশের হার ৪৫.৭৫ শতাংশ, নোবেল কলেজে পাশের হার ৩০ শতাংশ ও গ্রীণল্যান্ড কলেজে পাশের হার ২৩ শতাংশ।

দাগনভূঞা সরকারি ইকবাল মেমোরিয়াল কলেজে ৯৫৫ জন অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৬৬৩ জন। পাশের হার ৬৬.২৮শতাংশ। জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। ছাগলনাইয়া সরকারি কলেজে ৭৩৬ জন অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৩৩৪জন। পাশের হার ৪৫.৩৮শতাংশ।

ফুলগাজীর হাজী মনির আহাম্মদ কলেজে পাশের হার ৬২.৯০ শতাংশ। ফুলগাজী মহিলা কলেজে পাশের হার ৫০.৩৬ শতাংশ। হাসানপুর স্কুল এন্ড কলেজে পাশের হার ৪৭.৪৬ শতাংশ। ফুলগাজী সরকারী কলেজে পাশের হার ৪২.২৫ শতাংশ। আলী আজম স্কুল এন্ড কলেজে পাশের হার ৩৫.৭১ শতাংশ।

ফেনী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বিমল কান্তি পাল বলেন, এ বছর কলেজের ফলাফল আশানুরুপ না হলেও গতবারের চেয়ে ভালো হয়েছে। এজন্য শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবকদের ভুমিকাও ছিল।

antalya escort bursa escort adana escort mersin escort mugla escort samsun escort konya escort