স্টাফ রিপোর্টার : দাগনভূঞা উপজেলায় এবারের এসএসসি পরিক্ষায় ৩১৪৪জন পরিক্ষার্থী অংশগ্রহন করে পাশ করেছে ২২৮১ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৪জন। অপরদিকে মাদরাসার দাখিল পরিক্ষায় ৮৪৭ জন অংশগ্রহণ করে পাশ করেছে ৪৪৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে মাত্র ৪জন।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, উপজেলায় এসএসসি পরিক্ষায় প্রথম হয়েছে প্রতাপপুর উচ্চ বিদ্যালয়। প্রতাপপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৫৪ জন, পাশের হার ৯৩.১০। সুজাতপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১০৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৯৯জন, পাশের হার ৯২.৫২। জাফর ইমাম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬৯জন পরীক্ষা ৬১জন, পাশের হার ৮৮.৪১।

এছাড়াও আতাতুর্ক সরকারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২৮৫জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২৩৪জন পাশের হার ৮২.১১ ও দাগনভূঁঞা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২৪৭জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৪৪জন পাশের হার ৫৮.৩০ এবং দাগনভূঁঞা একাডেমী থেকে ১৪৫জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১০০জন পাশের হার ৬৮.৯৭।

অপরদিকে দাখিল পরীক্ষায় উপজেলায় মাদরাসা প্রথম হয়েছে মাতুভূঁঞা ইসলামীয়া দাখিল মারদরাসা। মাতুভূঁঞা মাদরাসা থেকে ২৫জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৯জন পাশের হার ৭৬.০০, আমুভূঞারহাট হাছানিয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে ৪৯জন পরীক্ষা দিয়ে ৩৭জন পাশ করেছে পাশের হার ৭৫.৫১, জামেয়া হযরত আবুবকর ছিদ্দিক (র:) দাখিল মাদরাসা থেকে ২৬জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৮জন, পাশের হার ৬৯.২৩। এছাড়া আজিজিয়া ফাজিল মাদরাসা থেকে ৮৫জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৫৮জন, পাশের হার ৬৮.২৪, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪জন।

দাগনভূঞা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আজিজুল হক বলেন, উপজেলায় পাশের হার তুলনামূলক হারে বেড়েছে। কিন্তু দাখিল পরীক্ষায় ফলাফল বিপর্যয় হয়েছে।