অনলাইন ডেস্ক নিউজ

 

দাগনভূঞা উপজেলা চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন বলেছেন, চমৎকার একটি পরিবেশে ট্রাস্ট স্কুল অবস্থিত। এ প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতাদের মেধা, রুচি এবং ভাবনা অসাধারণ, তাদের ভাবনা প্রশংসনীয়। তিনি বলেন, অভিভাবকরা চান তার বাচ্চার নিরাপত্তা। সেদিক থেকে এটি একটি নিরাপদ শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান। এখানে আপনার সন্তানরা পুরোপুরি নিরাপদ। নির্ভাবনায় আপনার সন্তানকে এ স্কুলে ভর্তি করিয়ে দিতে পারেন। এটি আগামী ২-৪ বছরের মধ্যে উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠানে রুপ নিবে। তিনি শনিবার সকালে ফেনী রোডস্থ স্কুল ক্যাম্পাসে চলতি বছরের ক্লাশ পার্টি (শেষ ক্লাস উৎসব) উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন।
স্কুলের চেয়ারম্যান দৈনিক ফেনীর সময় সম্পাদক ও প্রকাশক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে ও স্কুলের শিক্ষিকা ফাহমিদা চৌধুরীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মহি উদ্দিন জুয়েল, সাবেক কাউন্সিলর নজির আহমদ ও স্কুল পরিচালনা পর্ষদ সদস্য জহির উদ্দিন বাবর। এসময় উপস্থিত ছিলেন দাগনভূঞা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সমকাল প্রতিনিধি ইমাম হাছান কচি, স্কুলের পরিচালনা পর্ষদ সদস্য কামরুজ্জামান ও প্রধান শিক্ষক ইমাম হোসেন মাসুদ প্রমূখ। অনুষ্ঠানে একক নৃত্য পরিবেশন করে কয়েকজন শিক্ষার্থী। পরে অতিথিবৃন্দ কেক কেটে ক্লাস পার্টির সমাপ্তি ঘোষনা করেন।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় দিদারুল কবির রতন বলেন, আমি ২ বছর আগে এ স্কুলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা ছিল, তখন একটি জরুরী প্রয়োজনে আসতে পারিনি। আজ এসে বুঝতে পারছি আমি মিস করেছি। শ্রেণিকক্ষে সবাই সামনের টেবিলে বসবে এ সিস্টেমটাও খুবই চমৎকার। আমি মনে করি, যেসব অভিভাবক এ স্কুলে আসেননি তারা এখানকার পরিবেশ সম্পর্কে ধারণা নেই। যদি একবার কোন অভিভাবক এখানে আসে তাহলে তিনি অবশ্যই তার সন্তানকে এখানে ভর্তি করাবেন। অভিভাবকদের দৃষ্টি আকর্ষন করে তিনি বলেন, আপনার পাশের বাসার অভিভাবকদের অনুরোধ করেন যেন ট্রাস্ট স্কুলের পরিবেশটা একটু দেখে যায়। এখানে সামনের আঙ্গিনায় খেলাধুলার পরিবেশ রয়েছে। নিরাপত্তা গেইট রয়েছে, সুন্দর পরিবেশ রয়েছে।
স্কুলের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন বলেন, স্কুলটি উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রূপ নিয়েছে। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা ইউ পদ্ধতিতে শ্রেণি কার্যক্রমে অংশ নেয়। এখানে কোন শিক্ষার্থীকে ব্যাক টেবিলে বসতে হয়না বিধায় শিক্ষকরা খুব নিবিড়ভাবে তাদের পরিচর্যা করতে পারে। তিনি এ স্কুলের শিক্ষার্থীদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করেন।