অনলাইন ডেস্ক নিউজ

ফেনী শহরের ট্রাংক রোডে শাওন ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস অফিসে বুধবার অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় দুই পাসপোর্ট দালালের কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, জেলা প্রশাসনের সহকারি কশিমনার ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সোহেল রানা শাওন ট্রাভেলস এর হানা দেয়। এসময় দু’জন পাসপোর্ট সেবা গ্রহীতার কাছ থেকে সরকারি ৩ হাজার ৪শ ৫০ টাকার ক্ষেত্রে ১০ হাজার ৫শ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন ট্রাভেলস এর কর্মচারী ইস্রাফিল হোসেন। প্রতিষ্ঠানের ফাইল কেবিনেটের ড্রয়ার থেকে আধুনিক সদর হাসপাতালের কনসালটেন্ট মেডিসিন ডা. আকবর আলি ও ডা. নূরের আলম, সোনাগাজী সরকারি কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মো: কামাল হোসেনের নামে তিনটি সিল জব্দ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানান, এগুলো ভুয়া সিল। এই নামে কোন ব্যক্তি নেই।
জিজ্ঞাসাবাদে প্রতিষ্ঠানটির মালিক মাকসুদুর রহমান মাসুদ ভ্রাম্যমান আদালতকে জানায়, প্রতিটি পাসপোর্টের জন্য পাসপোর্ট অফিসকে দিতে হয় ১ হাজার ১শ টাকা। এই টাকা সংগ্রহ করেন ফেনী পাসপোর্ট অফিসের জাকির নামে এক ব্যক্তি। তিনি অফিসের কর্মচারি না হলেও তিনি দালাল থেকে এই টাকা সংগ্রহ করেন।
মাকসুদুর রহমান মাসুদ আরো জানায়, ডিএসবির পক্ষ থেকে আউয়াল নামে একজন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর জন্য প্রতি পাসপোর্ট থেকে ৭শ টাকা নিয়ে যান।
পরে ভ্রাম্যমান আদালত মাকসুদুর রহমানকে ১ মাস কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা, ইস্রাফিল হোসেনকে ১৫ দিনের কারাদন্ড প্রদান করা হয়। অভিযানে ব্যাটালিয়ান আনসারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।