স্টাফ রিপোর্টার :
পুড়িয়ে হত্যা করা সোনাগাজীর মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির শ্লীলতাহানির ঘটনায় তার মায়ের করা মামলায় মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. জাকির হোসাইন এ আদেশ দেন।
এর আগে নুসরাতের শ্লীলতাহানির ঘটনায় সোনাগাজী দাখিল মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ–দৌলাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পরিদর্শক মোহাম্মদ শাহ আলম সাত দিনের রিমান্ড আবেদন জানান।
আদালত সূত্র জানায়, গতকাল সকালে মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজকে রিমান্ড শুনানির জন্য আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে তার পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না। শুনানি শেষে তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।
আদালত সূত্র জানায়, গত ২৭ মার্চ সকালে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ ওই মাদরাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। এ ঘটনায় নুসরাত রাফির মা সোনাগাজী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। পুলিশ ওই দিনই মাদরাসার অধ্যক্ষকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।
৬ এপ্রিল সকালে নুসরাত রাফি পরীক্ষা দিতে গেলে তাকে ডেকে মাদরাসার প্রশাসনিক ভবনের ছাদে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাফির গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। ১০ এপ্রিল রাত ১০টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাফি মারা যান। এ ঘটনায় দেশব্যাপী ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়।
রাফি হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত পিবিআই ২১ জনকে গ্রেফতার করেছে। এর মধ্যে ১৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এবং ১২ জন আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। রাফি হত্যা মামলায় আদালতে দেওয়া ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে অধ্যক্ষ সিরাজ মাদরাসা ছাত্রী রাফির গায়ে আগুন দেওয়ার ঘটনায় তার হাত আছে বলে স্বীকার করেন।

antalya escort bursa escort adana escort mersin escort mugla escort samsun escort konya escort