অনলাইন ডেস্ক

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ছে গোটা বিশ্বে।বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জীবনযাপন পদ্ধতি ও দৈনন্দিন খাবার-দাবার এর জন্য অনেকাংশে দায়ী। হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমাতে তারা কিছু পরামর্শও দিয়েছেন।

১.হৃদরোগের অন্যতম কারণ ধূমপান। এটা থেকে বিরত থাকলে পারলে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক কমে।

২.কোলেষ্টেরল রক্তে ফ্যাটের উপস্থিতি বাড়িয়ে দেয়। সুস্থ শরীরের জন্য কোলেষ্টেরলের প্রয়োজনীয়তা আছে কিন্তু সেক্ষেত্রে ভারসাম্য না থাকলে এটি হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। এ কারণে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।

৩.উচ্চ রক্তচাপ হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।এ জন্য উচ্চ রক্তচাপ সবসময় নিয়ন্ত্রণে রাখা উচিত।

৪.ডায়াবেটিস থাকলেও হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে।হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি এড়াতে এটাও নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

৫. নিয়মিত শরীর চর্চা কিংবা কাজকর্ম করলে হৃৎপিন্ড সুস্থ থাকে।

৬. ওজন নিয়ন্ত্রণ হৃদরোগ এড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৭. স্বাস্থ্যকর খাবার ওজন নিয়ন্ত্রণ করে, উচ্চ রক্তচাপ এবং খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। এতে হৃদপিন্ডও সুস্থ থাকে। হৃদরোগের ঝুঁকি এড়াতে কম লবণযুক্ত খাবার খেতে হবে। সেই সঙ্গে ফ্যাটি খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

৮. যারা বিষন্নতায় ভোগেন তাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার মারাত্মক ঝুঁকি থাকে।এ কারণে হৃদরোগের ঝুঁকি এড়াতে মানসিক ভাবেও সুস্থ থাকা প্রয়োজন।এজন্য পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ তৈরি করতে হবে।

সূত্র : হার্ট ফাউন্ডেশন

antalya escort bursa escort adana escort mersin escort mugla escort samsun escort konya escort